সব ঝুটা হ্যায়!
Desh|November 02, 2021
ধর্ম যে-ভয়টা দেখায় সেটা আসলে কথা বলাকেই দেখায়। কথা বলাকেই ভায়ােলেন্স দিয়ে চুপ করাতে সব ধর্ম সচেষ্ট।
সঙ্গীতা বন্দ্যোপাধ্যায়

যে ভাবেই দেখার চেষ্টা করি না কেন, যতটা কট্টর সমালােচনাই করার চেষ্টা করি। না কেন, একেবারে শেষে গিয়ে মনে হয় যে, আমরা যতটা ধর্মহীন বা ধর্মের ঊর্ধ্বে উঠে গেছি বলে ভাবি নিজেদের, বােধহয় আমরা সত্যি ততটা ধর্মহীন ইহজীবনে হয়ে উঠতে পারি না। আমরা উদার হতে পারি, সেকুলার হতে পারি, নাস্তিক হতে পারি, পরধর্মর্সহিষ্ণু হতে পারি, কিন্তু গােপনে আমাদের নিজেদের ধর্মের প্রতি বােধহয় আমাদের একটা ownership' থেকে যায়।

এই ওনারশিপ থেকে যায় বলেই যখনই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিতে আঘাত আসে ভারতবর্ষের সংখ্যাগুরু উদার, সেকুলার, পরধর্মর্সহিষ্ণু, নাস্তিক মানুষ সব সময়ই ভারতবর্ষের সংখ্যালঘুদের পাশে গিয়ে দাঁড়ান। এবং সংখ্যালঘুদের ওপর নেমে আসা রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস, বিবেকহীনতা, অসম্মান ও অমানবিকতার সরব নিন্দা করেন, প্রত্যাখ্যান করেন ও সংখ্যালঘুদের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য আন্দোলনে সামিল হন। মিছিল-মিটিং করেন, লিখে, গান গেয়ে, কথা বলে সংখ্যালঘুদের প্রতি আক্রমণকে ধিক্কার জানান। নিজের ধর্মের প্রতি একটা ওনারশিপ থাকে বলেই একজন মার। নিজের বাচ্চাকে শাসন করার যে-অধিকার, সেই অধিকারের অনুরূপ অধিকার থেকে ভারতবর্ষের মাটিতে সংখ্যালঘুদের ওপর নেমে আসা বৈষম্যমূলক আচরণের প্রতিকার চেয়ে সমাজের ধর্মনিরপেক্ষ ধর্মীয় সংখ্যাগরিষ্ঠরা প্রতিবাদে মুখর হন। কারণ তাঁরা কোথাও একটা নিশ্চয়ই বিশ্বাস করেন যে, ‘আমার ধর্মকে আমি আঘাত করলে আদপেই আঘাত লাগে না। কোথাও একটা বিশ্বাস করেন, “আমার ধর্মের সমালােচনা করার অধিকার আমার আছে। আমার ধর্ম উগ্রপন্থায় মেতে উঠলে আমি তাতে লাগাম পরানাের ন্যায়ত অধিকারী। বলা বাহুল্য এখানে আসলে মুক্তচিন্তার থেকে খুব গােপনে প্রাধান্য পায় নিজের ধর্মীয় পরিচয়, সেই ধর্মীয় আইডেনটিটিই কথা বলার অধিকার হয়ে ওঠে।

Continue reading your story on the app

Continue reading your story in the magazine

MORE STORIES FROM DESHView All

সাবলীল, মিশুকে ওমিক্রন

তবে কোভিড-প্রাঙ্গণের লড়াইটা বরাবরের জন্য নরমসরম হয়ে গেল বলে ভেবে নেওয়াটা বােধহয় ঠিক হবে না।

1 min read
Desh
January 17, 2022

মহাজাতির স্বপ্ন ও সুভাষচন্দ্র

কংগ্রেসের ভিতরে গণতন্ত্র দাবি করার মূল্য দিতে হল সুভাষচন্দ্রকে। ১৯৩৯ সালের অগস্ট থেকে শুরু করে তিন বছরের জন্য Congress High Command সুভাষচন্দ্রের কোনও নির্বাচনী আসন গ্রহণ নিষিদ্ধ করে দিল। ভাইয়ের পাশে দাঁড়ানাের অপরাধে শরৎচন্দ্র বসুর উদ্দেশেও ধাবিত হল শৃঙ্খলাভঙ্গের শাস্তি।

2 mins read
Desh
January 17, 2022

বাংলার ট্র্যাজিক রাজনীতির শেষ নায়ক

উনিশশাে পঞ্চাশ-ষাটের দশকে, আমরা যখন ইশকুলে পড়ি, তখন নেতাজির ফিরে আসার কল্পনায় হা-পিত্যেশ করে বসে থাকতাম। আমার বাঙাল, প্রাক্তন বিপ্লবী, ঢাকা-থেকে-সদ্য-আগত মামারা স্বামীজি আর নেতাজিকেই। আদর্শ পুরুষ বলে কথাবার্তায় তুলে ধরতেন। বলতেন, নেতাজি থাকলে দেশের চেহারা অন্যরকম হত।

1 min read
Desh
January 17, 2022

অনৈতিক বিজ্ঞানচর্চার অবসান হােক

ভারতের বৈজ্ঞানিকদের মধ্যেও এই অসাধু আচরণের ক্রমবর্ধমান অনুপাত উদ্বেগজনক হয়ে উঠেছে। অনলাইন ডেটাবেস “রিট্যাকশন ওয়াচ’-এ ২০১০ সাল থেকে তালিকাভুক্ত ভারতের বিজ্ঞানীদের দ্বারা প্রকাশিত প্রায় ১০০০টি গবেষণাপত্র প্রত্যাহার করা হয়েছে।

1 min read
Desh
January 17, 2022

নেতাজির রাজনৈতিক উত্তরাধিকার

জন্মের একশাে পঁচিশ বছর পরে বা একবিংশ শতাব্দতে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুকে কীভাবে ফিরে পড়া যাবে? দুটো ঘটনা মনে পড়ছে। অধ্যাপক সুগত বসুর হিজ ম্যাজেস্টিজ অপােনেন্ট সদ্য প্রকাশিত হয়েছে। সেই প্রসঙ্গে ওঁর একটি সাক্ষাক্কার চলছে। এক তরুণ সাংবাদিক নেতাজির প্রত্যাবর্তনের কিংবদন্তি, গুজব এইসব বিষয়ে অধ্যাপক বসুর কী মত জিজ্ঞাসা করছিলেন।

1 min read
Desh
January 17, 2022

‘জনতার দরবার' বলে আর কিছু নেই

জী ব ন যে র ক ম ‘জনতার দরবার’ বলে আর কিছু নেই আলোচনাটি করেছেন সুমি ত মিত্র অঙ্কন করেছেন সৌমেন দাস

1 min read
Desh
January 17, 2022

মােদীর ভারতবর্ষ:পরিবর্তন এবং আশঙ্কা

লিবারাল সেকুলার ডেমােক্র্যাসি হিসেবে এই দেশ আবার কখন, কীভাবে ফিরে আসবে তা বলা সত্যিই কঠিন।

1 min read
Desh
January 17, 2022

ক্রুরতা ও সারল্যের দুই বিপরীত চিত্র

পরিচালক অ্যাডাম ম্যাকে আসলে বলতে চেয়েছেন— লুক আপ! অন্ধ সেজে থাকার অনুরাগে তাে কাটিয়েই দেওয়া গেল বহু বছর।

1 min read
Desh
January 17, 2022

কথামৃতের নিবিড় পুনঃপাঠ

শ্রীরামকৃষ্ণ ও মহেন্দ্রনাথের কথােপকথনের। এক সাহিত্যতাত্ত্বিক বিশ্লেষণ এই বই। লেখক এখানে মূলত মিখাইল বাখতিনের তাত্ত্বিক কাঠামাে অনুসরণ করেছেন।

1 min read
Desh
January 17, 2022

ইতিহাসকে অস্বীকার

ক্ষমতা এবং নিজস্ব ভাবমূর্তিকে অতি প্রকট করার জন্য বর্তমান প্রধানমন্ত্রী যে-ভাবে ইতিহাসনিষ্ঠতার পথ থেকে সরে আসছেন, তা মেনে নেওয়া যায় না। আজ ক্ষমতার দম্ভে যতই ইতিহাস ও সত্যকে নস্যাৎ করা হােক, এক দিন তার প্রতিফলন আসবেই।

1 min read
Desh
January 17, 2022