প্রেগন্যান্সি এবং করােনা

Grihshobha - Bangla|June 2020

প্রেগন্যান্সি এবং করােনা
এই মহামারী পরিস্থিতিতে কী করবেন অন্তঃস্বত্তারা? কতটা সম্ভাবনা রয়েছে আক্রান্ত হওয়ার? কীভাবে সংক্রমণ এড়াবেন? আইভিএফ এক্সপার্টের মতামত জেনে লিখছেন অবন্তী সিনহা শুক্লা৷

করােনা ভাইরাস এখন এক ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত, করােনা আক্রান্তের সংখ্যাটা দেশব্যাপী আশঙ্কাজনক ভাবে বেড়ে চলেছে। যুবক থেকে প্রৌঢ় সকলেই কোনও না কোনও সময়ে এর কবলে পড়ছেন। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও গ্লোবাল এমার্জেন্সি হিসাবে এটাকে ট্রিট করা শুরু করেছে। শুধু অশক্ত ও বৃদ্ধরাই যে এর শিকার হচ্ছেন এমনটা আর বলা চলে না। শিশু থেকে তরুণী কেউ নিস্তার পাচ্ছে না এখন।

এরকম পরিস্থিতিতে প্রেগন্যান্ট মহিলারা কীভাবে সতর্ক থাকবেন কোভিড ১৯-এর প্রভাব থেকে, সেটা বেশ দুশ্চিন্তার। মা এবং গর্ভস্থ শিশু, দুজনেরই সুস্থ থাকা একান্ত জরুরি। সম্প্রতি কলকাতাতেও আমরা দেখেছি বেশ কিছু হাসপাতালে কোভিড পজিটিভ হচ্ছেন প্রসূতিরা।

সবচেয়ে চিন্তার বিষয় হল, গর্ভধারণের সময়কাল জুড়েই মহিলাদের শরীরের অভ্যন্তরে নানারকম পরিবর্তন ঘটতে থাকে। ইমিউন সিস্টেম বেশ দুর্বল থাকে। এর ফলে সংক্রমণের সম্ভাবনা বৃদ্ধি পায়। এই পরিস্থিতিতে অনেকেই খুব আশঙ্কায় আছেন যে, প্রেগন্যান্ট মহিলাদের ক্ষতির পরিমাণ ঠিক কতটা? এই রােগে আক্রান্ত হলে কতটাই বা সুরক্ষিত থাকবে তার গর্ভস্থ শিশুটি। সদ্যজাতও কি এই ভাইরাস শরীরে নিয়ে পৃথিবীতে আসবে? কী ভাবে নবজাতক-কে সুরক্ষিত রাখা প্রয়ােজন?

কোনও অন্তঃসত্ত্বার করােনা হলে কী ধরনের শারীরিক সমস্যা তৈরি হতে পারে?

articleRead

You can read up to 3 premium stories before you subscribe to Magzter GOLD

Log in, if you are already a subscriber

GoldLogo

Get unlimited access to thousands of curated premium stories and 5,000+ magazines

READ THE ENTIRE ISSUE

June 2020